প্রকাশিত : ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ ২৩:০৩

আকবরিয়ার দই-মিষ্টি অপূর্ব সৃষ্টি সমাদৃত দেশ ও দেশের বাইরে

প্রেস বিজ্ঞপ্তি
আকবরিয়ার দই-মিষ্টি অপূর্ব সৃষ্টি সমাদৃত দেশ ও দেশের বাইরে

আকবরিয়ার দই-মিষ্টি অপুর্ব সমারোহে সমাদৃত হয়েছে দেশ ও দেশের বাইরে। দই-মিষ্টির কথা ভাবতেই গোটা দেশ স্মরণ করে বগুড়াকে। দই-মিষ্টি মানেই ইতিহাস খ্যাত হযরত শাহ সুলতান বলখি (রাঃ) এর পূণ্ড্র নগরী বগুড়া। বগুড়ার মানুষ যেখানেই যাক না কেন কদর বাড়ে এ জনপদের সুস্বাদু দই-মিষ্টির কারণে। দেশে ও দেশের বাহিরেও বগুড়ার দই-মিষ্টির কদর রয়েছে।

এক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রেখেছে শতাব্দীর স্বাক্ষর আকবরিয়া। খাদ্য উৎপাদন ও বিপনণকারী প্রতিষ্ঠানটি যখন দই-মিষ্টির অপূর্ব সমারোহে দেশে বিদেশে সমাদৃত হয়েছে তখন গজে উঠা অনেক প্রতিষ্ঠানের অস্তিত্বই ছিল না। বর্তমানে অনেকের ভিড়ে শতাব্দীকাল ব্যাপি ঐতিহ্যের স্বাক্ষর ভোক্তাবান্ধব আকবরিয়া গুনগত মান ও সুনামের ধারাবাহিকতা অক্ষুন্ন রেখেছে। গোটা দেশের মানুষ এ প্রতিষ্ঠানের সামাজিক দায়বদ্ধতার কারণে হৃদয়ের মনিকোঠায় স্থান দিয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছাত্রী রোকসানা আকতার রুকু জানান. বগুড়া থেকে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা শিক্ষাঙ্গণে যাবার আগে বন্ধু-বান্ধবীদের রসনার তৃপ্তি যোগান দেয়ার নিমিত্তে বগুড়ার দই-মিষ্টি নিয়ে পৌঁছে ক্যাম্পাসে। দই-মিষ্টির কার্টুন দেখে আনন্দে নেচে ওঠে বিভিন্ন জেলার বন্ধু-বান্ধবীরা। পরিবার পরিজন, বন্ধু-বান্ধব, আত্মীয় স্বজনের রসনার তৃপ্তি মেটানোর পাশাপাশি প্রিয় মুখ প্রিয়জনের কাঙ্খিত প্রত্যাশা পুরণ করতে সক্ষম হচ্ছে এ প্রতিষ্ঠানটি। 

আকবরিয়া লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসেন আলী দুলাল জানান, বাংলাদেশের অন্যান্য জেলা কিংবা অঞ্চলে উৎপাদিত হলেও কিছু বিশেষত্বের কারণে বগুড়ার দই-মিষ্টির খ্যাতি দেশজুড়ে। উৎপাদন ব্যবস্থার প্রতিটি পর্যায়ে কারিগরদের (উৎপাদক) বিশেষ পদ্ধতি অনুসরণের পাশাপাশি মান নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে তারা যত্নবান হওয়ায় বগুড়ার দই-মিষ্টি স্বাদে-গুণে তুলনাহীন।

আকবরিয়া লিমিডেটের চেয়ারম্যান হাসান আলী আলালের সাথে আলাপকালে জানান, বিদেশে বগুড়ার দইয়ের খ্যাতি সর্বপ্রথম ১৯৩৮ সালে ইংল্যান্ডে ছড়িয়ে পড়ে। আকবরিয়া প্রতিষ্ঠানটি গোড়া পত্তন করে ১৯১১ সালে। প্রতিষ্ঠার পরবর্তীতে আকবরিয়ার দই-মিষ্টি স্বাদে ও গুনে অতুলনীয় হওয়ায় দেশ ও বিদেশে সকলের কাছে  অতি প্রিয়। বগুড়ার দই-মিষ্টির স্বাদ এখন সকলের মুখে মুখে। এখন যেকোন অনুষ্ঠানাদিতে খাওয়ার শেষে বগুড়ার দই না হলে তৃপ্তি হয় না। রসনার তৃপ্তি মেটাতে এ প্রতিষ্ঠানটি বদ্ধপরিকর।

উপরে