logo
আপডেট : ১২ জানুয়ারী, ২০২২ ২৩:২৭
নন্দীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন স্থগিত ঘোষণা
নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি :

নন্দীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন স্থগিত ঘোষণা

বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার নন্দীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন স্থগিত ঘোষণা করেছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা সোহাগ।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) বিকেল ৫ টায় দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তিনি ১৩ জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য নন্দীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন স্থগিত ঘোষণা করেন। 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে নন্দীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা সোহাগ বলেন, আমি আওয়ামী পরিবারের সন্তান হিসেবে ছাত্রজীবনে ছাত্রলীগের রাজনীতি করেছি। ছাত্রজীবন শেষে উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্বাচিত হই। সুনামের সহিত রাজনীতিতে দায়িত্বপালন করেছি। এ কারণে ২০১২ সালে নন্দীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে আমি সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হই। সুনামের সহিত নন্দীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বপালন করায় ২০১৬ সালে নন্দীগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আমাকে চেয়ারম্যান পদে  মনোনয়ন দেয়। আমি নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করি। আমি সবসময় রাজনীতিতে সক্রিয় রয়েছি।

এমতাবস্থায় ১৩ জানুয়ারি নন্দীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনের দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হলেও কোনো ওয়ার্ড কমিটি বা কাউন্সিলরদের তালিকা হাতে পাইনি। এ পরিস্থিতিতে নন্দীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন হলে তা গঠনতন্ত্র পরিপন্থি হবে। আমি নিজেও একজন সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী।

এ বিষয়ে জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদকের নিকট অভিযোগ বা সময়ের আবেদন করতে গেলে তা গ্রহণ করেনি। তাই পরিস্থিতি বিবেচনা করে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নন্দীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন স্থগিত করতে জেলা ও উপজেলা নেতৃবৃন্দের নিকট দাবি জানাচ্ছি। সেইসাথে নন্দীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ত্রিবার্ষিক সম্মেলন স্থগিত ঘোষণা করছি। পরবর্তী আলোচনা সাপেক্ষে নন্দীগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনের দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ফটিক চন্দ্র মহন্ত, সাধারণ সম্পাদক ডালিম হোসেন, ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দীপ্ত কুমার মহন্ত ও আওয়ামী লীগ নেতা প্রবীর চন্দ্র মন্ডল প্রমুখ। এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলামের সাথে কথা বললে তিনি বলেন বিষয়টি আমার জানা নেই।