logo
আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ২৩:০৭
কিশোরগঞ্জ উপজেলা উত্তরাঞ্চলের মৎস্য ভান্ডার হিসেবে পরিচিতি ঘটাবে
কিশোরগঞ্জ(নীলফামারী)প্রতিনিধি

কিশোরগঞ্জ উপজেলা উত্তরাঞ্চলের মৎস্য ভান্ডার হিসেবে পরিচিতি ঘটাবে

নীলফামারীর জেলা প্রশাসক খন্দকার ইয়াসির আরেফীন বলেছেন- মৎস্য উৎপাদনের ক্ষেত্রে কিশোরগঞ্জ উপজেলা বা নীলফামারী  জেলা নয় উত্তরাঞ্চলের মৎস্য ভান্ডার হিসেবে পরিচিতি লাভ করবে এ উপজেলা।

কিশোরগঞ্জ উপজেলায় বৃহস্তর তিস্তা ক্যানেলসহ বহু নদী খাল বিল রয়েছে। এসব ক্যানেল-নদী-খাল-বিলে সমন্বয় করে মাছ চাষ করা হলে জেলার চাহিদা মিটিয়ে উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন স্থানে এখানকার উৎপাদিত মাছ চলে যাবে। সকলকে পরিকল্পিতভাবে মাছ চাষের আহ্বান জানান তিনি। কিশোরগঞ্জ উপজেলাকে মৎস্য চাষ ও মৎস্য উৎপাদনে রোল মডেল হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে কিশোরগঞ্জ উপজেলার চেংমারী নামক স্থানে তিস্তা ক্যানেলে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ শেষে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথাগুলো বলেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-ই-আলম সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন অফিসার ইনচার্জ রাজিব কুমার রায়, নীলফামারী পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী কৃষ্ণ কুমল চন্দ্র সরকার, জেলা মৎস্য অফিসার বরুন চন্দ্র বিশ্বাস, উপজেলা মৎস্য অফিসার আতাউর রহমান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম বাবু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা জাকির হোসেন বাবুল প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার ভূমি সানজিদা রহমান। 

উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা অফিসের আয়োজন এ মতবিনিময় সভা হয়।

উল্লেখ্য যে, ২০২২-২৩ অর্থবছরের রাজস্ব খাতের আওতায় নির্বাচিত পুকুর, বিল, ক্যানেল,উন্মুক্ত জলাশয় ও প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে পোনামাছ অবমুক্তর অংশ হিসেবে এ ক্যানেলে পোনা মাছ অবমুক্ত করা হয়।