প্রকাশিত : ৫ ডিসেম্বর, ২০২৩ ১২:৩৮

সাবেক ক্রীড়ামন্ত্রীর বিরুদ্ধে লঙ্কান বোর্ডের দুর্নীতির অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক
সাবেক ক্রীড়ামন্ত্রীর বিরুদ্ধে লঙ্কান বোর্ডের দুর্নীতির অভিযোগ

শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটে বিতর্ক যেন পিছু ছাড়ছেই না। দেশটির ক্রিকেট বোর্ডে রাজনৈতিক হস্তুক্ষেপের কারণে ইতোমধ্যে আইসিসির কঠিন শাস্তির মুখে পড়েছে তারা। এবার শ্রীলঙ্কার সাবেক ক্রীড়ামন্ত্রী রোশান রানাসিংহের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আনলো শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি)। এ প্রসঙ্গে একটি বিবৃতি দিয়েছে তারা।

শ্রীলঙ্কার কয়েকটি গণমাধ্যমের বরাতে জানা গেছে, দেশটির অন্যান্য খেলাধুলার উন্নতির জন্য জাতীয় স্পোর্টস ফান্ডকে একটি তহবিল দিয়েছিল দেশটির ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি)। এই তহবিল অপব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে রানাসিংহের বিরুদ্ধে। দুর্নীতির সেই অভিযোগ তদন্তে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ করেছে লঙ্কান বোর্ড।

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের (এসএলসি) বিবৃতিতে বলা হয়, ‘এসএলসি যে তহবিল বরাদ্দ করেছিল, জনাব রোশান রানাসিংহে তা কীভাবে ব্যবহার করেছেন, সেসব যথাযথভাবে না জানানোয় এই অভিযোগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।’

বিবৃতিতে বিষয়টি আরেকটি ব্যাখ্যা করেছে এসএলসি, ‘খরচ নিয়ে সংবাদমাধ্যমে রানাসিংহে এমপির দেওয়া তথ্য এবং তথ্য অধিকার আইনে (আরটিআই) এসএলসির আবেদনের ভিত্তিতে যা জানা গেছে-এই দুইয়ের মধ্যে কোনো মিল না থাকায় সিদ্ধান্তটি (তদন্তের) নেওয়া হলো।’

এর আগে বিশ্বকাপ চলাকালীন রানাসিংহে ক্রীড়ামন্ত্রী থাকতে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের গভর্নিং কমিটিকে বরখাস্ত করেন। এরপর শ্রীলঙ্কাকে ১৯৯৬ সালে বিশ্বকাপ জেতানো সাবেক অধিনায়ক অর্জুনা রানাতুঙ্গার নেতৃত্বে অন্তর্বর্তীকালীন কমিটিও গঠন করেন। 

অবশ্য পরে শ্রীলঙ্কার আপিল আদালতের নির্দেশে বরখাস্ত হওয়া বোর্ড পুনর্বহাল করা হয়। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডই আদালতে এই আপিল করেছিল। আগামীকাল তার শুনানির আগে রানাসিংহের বিরুদ্ধে নতুন এই অভিযোগ করলো এসএলসি। ফলে জটিলতা শেষ হওয়ার পরিবর্তে আরও বাড়লো।

বিশ্বকাপ শেষে এসএলসির বরাদ্দ করা তহবিল অপব্যবহারের দায়ে রানাসিংহের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছিল এসএলসি। এরপর গত ১০ নভেম্বর শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডকে সাসপেন্ড করে আইসিসি। এর জের ধরেই অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ভেন্যুও শ্রীলঙ্কা থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়।

উপরে